বাসের ধাক্কায় প্রাইভেটকারে থাকা দুই সন্তানসহ মা-বাবার প্রাণহানি

0
239

জেলার গৌরীপুরে একটি বাসের ধাক্কায় ব্যক্তিগত গাড়ীর যাত্রী (প্রাইভেটকার) দুই সন্তানসহ মা-বাবার প্রাণহানি হয়েছে।
নিহতরা হচ্ছে- মাধবদী বাংলা টেক্সটাইলের মালিক রফিকুল ইসলাম (৪৫), তার স্ত্রী শামসুন্নাহার শাহীনা (৩৫), কলেজ ছাত্র ছেলে নাবিল ইসলাম (১৯) ও মেয়ে রওনক জাহান (১৩)। ওই দম্পতির একমাত্র বেঁচে যাওয়া শিশু সন্তান নাহিদ ও প্রাইভেটকার চালক সেলিমকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আজ শুক্রবার সকালে এই দুর্ঘটনা ঘটে। তাদের গ্রামের বাড়ি নেত্রকোনা জেলার সুসং দূর্গাপুরে। তারা ঈদের ছুটি শেষে স্বপরিবারে নরসিংদী জেলার মাধবদীতে ফিরছিলেন।
গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম মিয়া জানান, রফিকুল ইসলাম ও তার পরিবারের সদস্যরা ঈদের ছুটি শেষে নিজের প্রাইভেটকারে মাধবদি ফিরছিলেন। বেলা ১১টার দিকে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ সড়কের গৌরীপুর উপজেলার রামগোপালপুর পৌঁছলে কিশোরগঞ্জগামী এমকে পরিবহনের দ্রুতগতির একটি বাস প্রাইভেটকারটিকে ধাক্কা দেয়। এতে প্রাইভেটকারটি রাস্তার পাশে একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই রফিকুল ইসলামের স্ত্রী শামসুন্নাহার শাহীনা মারা যান।
পরে এলাকাবাসী, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন দ্রুত ঘটনাস্থল পৌঁছে গুরুতর আহত অবস্থায় রফিকুল ইসলাম, তার পুত্র নাবিল ইসলাম, দুই কন্যা রওনক জাহান ও নাহিদ এবং প্রাইভেটকার চালক সেলিমকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।
সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক রফিকুল ইসলাম, নাবিল ইসলাম ও মেয়ে রওনক জাহানকে মৃত ঘোষণা করে। পুলিশ বাসটি আটক করেছে। তবে চালক পালিয়ে গেছে।